খেলা

১ নয় ২২ নম্বর জার্সি পছন্দ ইয়ারজানের

নিউজ ডেস্ক ‍   ঢাকা

১২ মার্চ ২০২৪


| ছবি: 

সাফ অনূর্ধ্ব-১৬ নারী দলের চ্যাম্পিয়নের অন্যতম নায়ক গোলরক্ষক ইয়ারজান। তাইতো আজ বাংলাদেশে আসার পর গণমাধ্যমের আগ্রহের কেন্দ্রে ছিলেন পঞ্চগড়ের এই গোলরক্ষক। 

ঘরোয়া ও আন্তর্জাতিক পর্যায়ে গোলরক্ষকরা সাধারণত ১ নম্বর জার্সি পড়েন। ইয়ারজান একটু ব্যতিক্রমভাবে ২২ নম্বর জার্সি পড়ে সাফ খেলেছেন। এর কারণ সম্পর্কে বলেন, 'আমার পছন্দেই ২২ নম্বর জার্সি পড়েছি। ২২ নম্বর আমার পছন্দ তাই ১ এর পরিবর্তে ২২ নম্বর জার্সি পড়ি।’ ২২ নম্বর জার্সি বিশেষ কোনো কারণে পছন্দ কিনা এটি অবশ্য খোলাসা করে বলেননি সাফের সেরা গোলরক্ষক।

পঞ্চগড়ের সাবেক ফুটবলার আবু তালেব টুকু। তার একাডেমীতে খেলেই মূলত জাতীয় দলে এসেছেন ইয়ারজান। তালেবের একাডেমীতে স্ট্রাইকার ও ডিফেন্ডার হিসেবে খেলা শুরু করেন ইয়ারজান। আকস্মিকভাবে তিনি পরবর্তীতে গোলরক্ষক বনে যান, 'আমি স্কুলে গোলরক্ষক হিসেবে খেলা শুরু করি। পরবর্তীতে একাডেমীতে উপরেই খেলতাম। এক দিন কোচ বললেন, 'তোমার নার্ভ ভালো, গোলকিপিং করো।' এরপর গোলকিপিং শুরু করি, ভালোই লাগছিল।’

অনূর্ধ্ব-১৬ বয়সে দক্ষিণ এশিয়ার সেরা গোলরক্ষক এখন বাংলাদেশের ইয়ারজান। তার এই সাফল্যের পেছনে পঞ্চগড়ের কোচের অবদানই দিলেন, 'আসলে ভাইয়ের জন্যই ( কোচকে ভাই হিসেবে সম্বোধন ) আমার ফুটবলে এই অবস্থান। তার প্রতি আমার কৃতজ্ঞতা।’

ইয়ারজানের বাবা শারীরিকভাবে অসুস্থ। বাংলাদেশ দলের চ্যাম্পিয়নশিপ ও তার টুর্নামেন্ট সেরা গোলরক্ষকের স্বীকৃতি বাবার বড় উপহার হিসেবে মনে করছেন, 'আমার বাবা অসুস্থ। আমার এই সাফল্য সে খুশি এতেই আনন্দ।'

103