বিনোদন

যে শর্তে এফডিসিতে কোরবানি দেবেন পরীমণি

ডেস্ক   ঢাকা

০৯ জুন ২০২৪


| ছবি: সংগৃহীত

 

২০১৬ সালে প্রথমবারের মতো এফডিসিতে কোরবানি দেন ঢাকাই সিনেমার আলোচিত চিত্রনায়িকা পরীমণি। সেই ধারাবাহিকতা বজায় রেখেছেন পরবর্তী ৫ বছর। সর্বশেষ ২০২১ সালে ৬টি গরু কোরবানি দেন এই নায়িকা। কিন্তু সে বছর এফডিসির ভেতর কোরবানি দেওয়ার নিষেধাজ্ঞা থাকায় বাইরে কোরবানি দেন পরী। 

এই নায়িকা জানিয়েছিলেন, যতদিন বেঁচে থাকবেন এফডিসিতে কোরবানি দেবেন। চলচ্চিত্রের অসচ্ছল সহশিল্পীদের মাঝে মাংস বিতরণ করবেন। কিন্তু ২০২২ সালে এফডিসিতে আর কোরবানি দিতে দেখা যায়নি পরীমণিকে। কি কারণে কোরবানি দেওয়া থেকে বিরত ছিলেন সে কারণও স্পষ্ট করেননি। ঠিক একই কাজ করেন পরবর্তী বছরেও। ২০২৩ সালেও এফডিসিতে কোরবানি দেননি এই অভিনেত্রী। নিজ বাড়িতেই কোরবানি দেন তিনি। 

তবে এ বছর আবারও এফডিসিতে কোরবানি দেওয়ার বিষয়ে ভাবছেন নায়িকা। সেক্ষেত্রে পরীমণির রয়েছে এক শর্ত। শুধুমাত্র এফডিসিতে আনন্দময় পরিবেশের নিশ্চয়তা পেলেই আবারও সেখানে কোরবানি দেবেন তিনি। 

এ বিষয়ে পরী বলেন, ‘এবারও কোরবানি দিতে চাই। যদি এফডিসির কেউ ভেতরে আনন্দময় পরিবেশে সবাইকে একসঙ্গে নিয়ে কোরবানি দেওয়ার নিশ্চয়তা দিতে পারে তবে সেখানে কোরবানি দেব।’গত দুই বছর কেনো কোরবানি দেননি, এমন প্রশ্নে অভিনেত্রী বলেন- ‘আমার দেওয়া বিগত কোরবানিগুলো সবাই মিলে আনন্দ-উৎসবের সঙ্গে দিয়েছি। তবে সবশেষ দেওয়া কোরবানি নিয়ে আমার তিক্ত অভিজ্ঞতা হয়েছে। তাই আমি এফডিসিতে কোরবানি দেওয়া থেকে সরে এসেছিলাম।’

বর্তমানে ‘রঙিলা কিতাব’ নামে একটি ওয়েব কন্টেন্টের কাজ করছেন পরী। কিঙ্কর আহ্সানের ‘রঙিলা কিতাব’ উপন্যাস অবলম্বনে নির্মিতব্য সাত পর্বের এ ওয়েব সিরিজের পরিচালনা করছেন অনম বিশ্বাস।

29